সফলতার গল্প

বাংলাদেশি তরুণ ‘গরিবের অ্যাম্বুলেন্স’ বানিয়ে পেলেন কমনওয়েলথ পুরস্কার

বাংলাদেশি তরুণ ফয়সাল ইসলাম (২৪) ‘গরিবের অ্যাম্বুলিন্স’খ্যাত তিন চাকার বাহন বানিয়ে পেলেন এ বছর কমনওয়েলথ পুরস্কার।



গত বুধবার এ পুরস্কার ঘোষণা করা হয়। দরিদ্র জনগোষ্ঠীর স্বাস্থ্যসেবায় বিশেষ অবদানের জন্য এ বছর কমনওয়েলথ ইয়ং পারসন অব দি ইয়ার নির্বাচিত হয়েছেন এ বাংলাদেশি তরুণ। খবর আরব নিউজের।

পুরস্কার হিসেবে তাকে দেওয়া হচ্ছে— সম্মাননা ক্রেস্টসহ সাত হাজার মার্কিন ডলার। তার সেফহুইল নামে প্রকল্পের জন্য এ পুরস্কার পান।

২০১৬ সালে ফয়সালের এক চাচা অ্যাম্বুলেন্স না পেয়ে বিনাচিকিৎসায় মারা যান। এর পর থেকে তার দুই বন্ধু রফিকুল ইসলাম (২৬) ও আনাস মল্লিককে (২৫) নিয়ে শুরু করেন তিন চাকার এই কম দামের অ্যাম্বুলেন্স প্রকল্প।



২০১৯ সালে প্রথম তাদের এ সেবামূলক প্রকল্প সেফহুইল চালু হয়। এটি মূলত একটি তিন চাকার অটোরিকশাকে বিশেষভাবে তৈরি করা অ্যাম্বুলেন্স। গ্রামীণ সড়কে সহজে চলাচল করতে সক্ষম এ বাহনে খরচও অনেক কম পড়ে।

গত বছর করোনার প্রাদুর্ভাবের কারণে বন্ধ রাখার পর গত মাস থেকে আবারও চালু হয়েছে সেফহুইলের সেবা।

২০১৯ সালে নওগাঁয় ১০টি অ্যাম্বুলেন্স দিয়ে পাইলট প্রকল্প চালু হয়। এ সময় এক হাজার গ্রামবাসীকে এ সেবা দেওয়া হয়।



সারা দেশে বিশেষ করে দরিদ্র জনগোষ্ঠীর মধ্যে এ সেবা পৌঁছে দিতে এ প্রকল্প নিয়ে এগিয়ে যান তিন তরুণ। বর্তমানে ফেনীর শতইধক গ্রামে এ সেবা চালু আছে।

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button